কারাগারে যেতে পারবেন খালেদার চিকিৎসক

0
54

কারাগারে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে। মেডিকেল বোর্ডের দেওয়া ব্যবস্থাপত্র গ্রহণ না করায় খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসককে কারাগারে যেতে দেওয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সরকারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেছেন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকেরা খালেদা জিয়াকে কিছু নতুন ওষুধ সেবনের পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু খালেদা জিয়া তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনো ওষুধ নিতে চাইছেন না। তাই তাঁরা মনে করছেন, খালেদা জিয়াকে তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করতে হবে।

কারাগার ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চার সদস্যের মেডিকেল বোর্ড খালেদা জিয়ার এক্স-রে ও রক্ত পরীক্ষার সুপারিশ করেছে। এ-সংক্রান্ত প্রতিবেদন গতকাল মঙ্গলবার কারা কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছেছে। কারা কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধি হাসপাতাল থেকে প্রতিবেদনটি নিয়ে যান।

 জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান গতকাল প্রথম আলোকে বলেন, ‘মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদনটি আমরা আজ (মঙ্গলবার) হাতে পেয়েছি। প্রতিবেদনে যে সুপারিশ করা হয়েছে, সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সুপারিশ অনুযায়ী সরকারি যেকোনো একটি ভালো হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে নেওয়া হতে পারে। এ ছাড়া হয়তো তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসককে কারাগারে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে।’

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়া একা হাঁটতে পারছেন না। এ ছাড়া তাঁর আগের সমস্যাগুলো আরও বেড়েছে। এসব অসুস্থতার জন্য ওষুধ দেওয়া হলেও তিনি তা নিচ্ছেন না। ফলে অসুস্থতা বাড়ছে।

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান মো. শামসুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা খালেদা জিয়াকে দেখে যেসব পরীক্ষা প্রয়োজন তা করতে বলেছেন। এ বিষয়ে তাঁদের সুপারিশসহ প্রতিবেদনটি হাসপাতালের পরিচালকের কাছে দেওয়া হয়েছে। পরিচালক প্রতিবেদনটি সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিয়েছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয় খালেদা জিয়ার ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অন্য পাঁচ আসামিকে। রায় ঘোষণার পরই নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারকে বিশেষ কারাগার ঘোষণা দিয়ে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে সেখানে রাখা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here