বিধি–নিষেধে সীমিত থাকবে বর্ষবরণ

0
130

নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে দেশজুড়ে পয়লা বৈশাখের আয়োজন সীমিত করা হয়েছে। এবারও প্রকাশ্য স্থানে পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠান বিকেল পাঁচটার মধ্যে শেষ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর রাজধানীর রবীন্দ্রসরোবরের অনুষ্ঠান শেষ করতে হবে সন্ধ্যা সাতটার মধ্যে।

একই সঙ্গে ভুভুজেলা নামে পরিচিত উচ্চ শব্দের বাঁশি বাজানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা এবং মুখোশ দিয়ে মুখ ঢাকা ও নিয়ন্ত্রণ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। গতকাল রোববার সচিবালয়ে বাংলা নববর্ষ উদ্‌যাপন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা–সংক্রান্ত সভা শেষে মন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন।

২০১৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে যৌন নিপীড়নের ঘটনার পর থেকে বাংলা নববর্ষের সব অনুষ্ঠান বিকেল পাঁচটার মধ্যে শেষ করতে বলা হচ্ছে। যার বিরোধিতা করছেন সংস্কৃতিকর্মীরা। গত বছরও স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন জেলায় মেলার আয়োজকদের প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে কয়েক দিনের আয়োজন এক দিনে নামিয়ে আনতে।

বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে নারীদের উত্ত্যক্ত করা ঠেকাতে এবার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষ দল থাকবে বলে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘শুধু উন্মুক্ত স্থানে আমরা এ ধরনের অনুষ্ঠান পাঁচটার পর বন্ধ করতে বলেছি। কেননা নিরাপত্তা সবার আগে। আমরা সব সময় বলে আসছি, বাইরে এ ধরনের অনুষ্ঠান করা যাবে না। হলরুমে কিংবা কনভেনশন হলে, কমিউনিটি সেন্টারে, বাসার ভেতরে অনুষ্ঠান করতে কোনো বাধা নেই।’ এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সতর্কতা ও নিরাপত্তার জন্য আমরা এসব ব্যবস্থা নিচ্ছি। পাঁচটার মধ্য যে যার বাড়িতে চলে যান।’

মন্ত্রী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হবে, সেই শোভাযাত্রায় নিরাপত্তা দেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মঙ্গল শোভাযাত্রায় মুখোশ মুখে নয়, হাতে প্ল্যাকার্ড হিসেবে রাখতে হবে। মন্ত্রী জানান, বরাবরের মতো রমনার বটমূলে পয়লা বৈশাখের মূল অনুষ্ঠান হবে। এ অনুষ্ঠানস্থলসহ অন্যান্য অনুষ্ঠানস্থলে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা থাকবে। থাকবে ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা। থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালতও।

পয়লা বৈশাখে রমনার বটমূলে বর্ষবরণের মূল অনুষ্ঠানের পাশাপাশি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানসহ বিভিন্ন এলাকার গুরুত্বপূর্ণ অন্য অনুষ্ঠানেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল থাকবে। রাজধানীর অনুষ্ঠানগুলো তদারকির জন্য ‘ওয়াচ টাওয়ারের’ পাশাপাশি আকাশ থেকেও তদারকি করা হবে। উত্ত্যক্ততা কিংবা যৌন হয়রানির ঘটনা ঠেকাতে সাদাপোশাকেও পুলিশ সদস্যরা কাজ করবেন বলে জানান তিনি। অনুষ্ঠানস্থলে ব্যাগ ছুরি, কাঁচি, দেশলাই ও দাহ্য পদার্থ নেওয়া যাবে না।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here